artk
শনিবার, ডিসেম্বার ১৪, ২০১৯ ২:৪০   |  ২৯,অগ্রহায়ণ ১৪২৬

স্টাফ রিপোর্টার

সোমবার, নভেম্বার ১১, ২০১৯ ১০:০৮

রাঁঙ্গার বিচারের ভার জনগণের কাছে দিলেন নূর হোসেনের মা

media

বুকে-পিঠে ‘স্বৈরাচার নিপাত যাক-গণতন্ত্র মুক্তি পাক’ লিখে সেদিন মিছিলে নেমেছিলেন আওয়ামী লীগকর্মী নূর হোসেন; সেদিন তার আত্মদান এরশাদবিরোধী আন্দোলনে দিয়েছিল নতুন মাত্রা।

নূর হোসেনকে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গাঁ 'মাদকাসক্ত' বলার প্রতিবাদে সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে প্রতিবাদী অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন এরশাদবিরোধী আন্দোলনে শহীদের পরিবারের সদস্যরা।

নূর হোসেনকে ‘মাদকাসক্ত’ বলায় জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঁঙ্গার বিচারের ভার জনগণের কাছে দিয়েছেন এই শহীদের মা মরিয়ম বিবি।

রাঙ্গাঁর বিতর্কিত বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে সোমবার বিকালে ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে নূর হোসেনের পরিবার।

ওই কর্মসূচিতে মরিয়ম বিবি বলেন, “নূর হোসেন আমার একার ছেলে না, সে জনগণের ছেলে। আপনারা ১০ নভেম্বর পালন করেন। এই জনগণের ছেলেকে সে (রাঙ্গাঁ) নেশাখোর বলেছে।

“যে লোক এই কথা বলেছে, এর বিচার আমি জনগণের কাছে দিলাম। তাকে এর জন্য জনগণের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে।”

অশ্রুনয়নে যখন মরিয়ম বিবি একথা বলছিলেন, তখন তার পাশেই ছিলেন নূর হোসেনের তিন ভাই আলী হোসেন, দেলোয়ার হোসেন ও আনোয়ার হোসেন এবং বোন শাহানা বেগম।

আলী হোসেন বলেন, “আমার মা সারাদিন কাঁদছে আজকে, সারাটা রাত, কিছুই বলতে পারিনি। অনেক চিন্তাভাবনা করে রাস্তায় বসছি। আপনারা সবাই আমাকে একটু সহযোগিতা করেন। এই লোকটাকে এর জন্য বিচার করেন আপনারা।”

রাঁঙ্গা তার বক্তব্যের জন্য জাতির কাছে ক্ষমা না চাওয়া পর্যন্ত প্রেস ক্লাবে অবস্থানে চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন নূর হোসেনের ভাই।

রোববার রাঙ্গাঁ জাতীয় পার্টির এক অনুষ্ঠানে বলেছিলেন, “হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে ক্ষমতাচ্যুত করতে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে মাদকাসক্ত নূর হোসেনকে পেছন থেকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।”

অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকারী সামরিক শাসক এইচ এম এরশাদকে হটাতে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও বামসহ দেশের প্রায় সব রাজনৈতিক দল সম্মিলিতভাবে ১৯৮৭ সালে ঢাকা অবরোধের কর্মসূচি দিয়েছিল; সেদিন পুলিশের গুলিতে নিহত হন পরিবহন শ্রমিক নূর হোসেন।

বুকে-পিঠে ‘স্বৈরাচার নিপাত যাক-গণতন্ত্র মুক্তি পাক’ লিখে সেদিন মিছিলে নেমেছিলেন আওয়ামী লীগকর্মী নূর হোসেন; সেদিন তার আত্মদান এরশাদবিরোধী আন্দোলনে দিয়েছিল নতুন মাত্রা।

১৯৮৭ সালে আন্দোলন নতুন মাত্রা পাওয়ার পর তিন বছরের মাথায় গণঅভ্যুত্থানে ১৯৯০ সালের ৪ ডিসেম্বর ক্ষমতা ছাড়তে রাজি হন এরশাদ; যার গড়া দল জাতীয় পার্টিতে এখন মহাসচিবের দায়িত্বে রয়েছেন রাঙ্গাঁ।

রাঙ্গাঁর বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেবেন কি না- সাংবাদিকরা জানতে চাইলে মরিয়ম বিবি বলেন, “আমি আমার ছেলেকে বলেছি, মামলা করা উচিৎ। আমি মামলা করতে রাজি আছি।”

পাশে থাকা বড় ছেলে আলী হোসেন বলেন, “নূর হোসেনের এই ঘটনার জন্য এরশাদ জাতীয় সংসদে ক্ষমা চেয়েছেন। আমাদের বাসায় গিয়ে আমার আব্বার কাছে মাফ চেয়েছেন যে আমি ভুল করেছি। আমার আব্বা নেই, আজকে বেঁচে থাকলে হয়ত বলত। কিন্তু এই ধরনের একটা মন্তব্য..তখন কি ইয়াবা ছিল? ফেনসিডিল ছিল?”

তিনি বলেন, “আমি জনগণের কাছে বলতে চাই, এই ছেলেটা আত্মাহুতি দিল দেশের জন্য, গণতন্ত্রের জন্য। তাঁকে এইভাবে ছোট করাটা কি ঠিক হল? আমরা জনগণের কাছে বিচার দিলাম।”

নূর হোসেনের ভাই আলী হোসেনও অশ্রুনয়নে বলেন, “আমরা তো কিছু চাই না আপনাদের কাছে। আমরা যে অবস্থায় আছি, সে অবস্থায় থাকি। কোনোদিন কারও কাছে হাত পাতি নাই। আমার মা, আমরা, খাই-না খাই, কোনোদিন কাউকে কিছু দিতে বলি নাই।

“আমাদের যারা ভাই আছে, দেখেন, টেস্ট করেন আমাদেরকে। আমরা কোনো অন্যায় কাজ করি কি না। আমরা শ্রমিক মানুষ। কাম করি খাই। সবাই আমরা মেহনতি মানুষ। দেশের মানুষকে ভালোবাসি। আমরা চাই দেশটা সুখে-শান্তিতে থাকুক।”

আলী হোসেন বলেন, “আমরা তো ক্ষমা করেই দিছিলাম, ভুলেই গেছিলাম। কেন সেই জিনিসটাকে আবার জাগাই তুলল? ৩৩ বছর পর আবার নতুন করে ঘাঁ সৃষ্টি করলো কেন? আমরা কি অন্যায় করেছি?”

এই সময় পরিবারের সবাই মিলে বলে উঠে ‘আমরা এই মিথ্যা অপবাদের বিচার চাই’।

এই বক্তব্যের মাধ্যমে রাঙ্গাঁ গণতন্ত্রের অন্য শহীদদেরও অপমান করেছেন বলে মন্তব্য করেন আলী হোসেন।

“জনগণ তাকে বয়কট করুক। এই ধরনের কথা বলার জন্য এই দেশে তার অধিকার নেই থাকার। তার এমপি পদ কেড়ে নেওয়া হোক। যদি আমরা এর প্রতিবাদ না করি তাহলে তো সে এই ধরনের কথা আরও বলবে।”

রাঙ্গাঁর এই বক্তব্যের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছেও বিচার দাবি করেন নূর হোসেনের ভাই।

ভারতের নাগরিকত্ব আইনের সংশোধন চায় জাতিসংঘ শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস শনিবার, শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তুত স্মৃতিসৌধ বিশ্বে ক্ষমতাধর নারীর তালিকায় ২৯তম শেখ হাসিনা দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে মুক্ত করা আইনের পরিপন্থী: গণপূর্তমন্ত্রী দৈনিক সংগ্রামের অফিসে ভাঙচুর, সম্পাদক পুলিশ হেফাজতে উত্তাল পরিস্থিতিতে শিলং সফর বাতিল করলেন অমিত শাহ ফিলিং স্টেশনে ৪ বছরে ৪৮ কোটি টাকার গ্যাস চুরি! ট্রাকের ধাক্কায় কবি নজরুল কলেজের শিক্ষার্থীর মৃত্যু ৪০ বছরের অভিজ্ঞতায় এত ভয়াবহ বার্ন দেখিনি: সামন্ত লাল শাজাহান খানের সম্পত্তির খোঁজ নেয়া উচিৎ: নিক্সন চৌধুরী ‘যত খুশি পেঁয়াজ নিয়া যান’ বীরগঞ্জে একসঙ্গে ২০ জোড়া এতিম তরুণ-তরুণীর বিয়ে ত্বকের যত্নে উপটান এনআরসি-সিএবি বিলের বিরুদ্ধে গণ-আন্দোলনের ডাক মমতার চাঁদপুরে গ্রাহকদের কোটি টাকা নিয়ে উধাও এনজিও জাপানের প্রধানমন্ত্রীও বাতিল করলেন ভারত সফর ২ মন্ত্রীর ভারত সফর বাতিলের কারণ জানালেন ওবায়দুল কাদের যুক্তরাজ্যে প্রথমবারের মতো এমপি সুনামগঞ্জের কন্যা আফসানা পাঞ্জাবি ও জ্যাকেটের পকেটে দুই কেজি স্বর্ণ খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপির বিক্ষোভ সামুদ্রিক মাছে কাপড়ের রং মিশিয়ে বিক্রি নির্বাচনের ফল ব্রেক্সিটের জন্য শক্তিশালী ম্যান্ডেট: বরিস জনসন ব্রিটেন নির্বাচন: তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত রুপা হক টেকনাফে ৮ লাখ ইয়াবা অস্ত্র-গুলিসহ আটক ৪ শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে যানবাহন চলাচলে নির্দেশনা যুক্তরাজ্য নির্বাচনে বরিসের কনজারভেটিভ পার্টি এগিয়ে গৌহাটিতে বাংলাদেশের কূটনীতিকের গাড়িবহরে হামলা পাইকারিতে কমলেও খুচরায় কমছে না পেঁয়াজের ঝাজ ১৯ বাংলাদেশি যুবককে ফেরত পাঠালো বিএসএফ রাজনীতিতে স্থায়ী সংঘাতময় পরিবেশের সৃষ্টি করা হলো: ফখরুল