artk
শুক্রবার, ডিসেম্বার ৬, ২০১৯ ৭:০২   |  ২২,অগ্রহায়ণ ১৪২৬

নিজস্ব প্রতিবেদক

সোমবার, অক্টোবার ২৮, ২০১৯ ২:১৭

“২৮ অক্টোবরের হত্যাকাণ্ড ছিল গভীর ষড়যন্ত্র”

media

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের আমীর মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন বলেছেন, ২৮ অক্টোবরের নারকীয় হত্যাকাণ্ড কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছিল না বরং তা ছিল দেশ ও জাতিসত্তাবিরোধী গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ।

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের আমীর মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন বলেছেন, ২৮ অক্টোবরের নারকীয় হত্যাকাণ্ড কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছিল না বরং তা ছিল দেশ ও জাতিসত্তাবিরোধী গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ।

খুনীরা প্রকাশ্য দিবালোকে রাজপথে পিটিয়ে মানুষ হত্যা করলেও ঘটনার একযুগ পরও অপরাধীদের বিচারের আওতায় আনা হয়নি। তিনি ২৮ অক্টোবরের শহীদদের গভীর শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন এবং তাদের শাহাদাত কবুলের জন্য মহান আল্লাহ তায়ালার দরবারে দোয়া ও মোনাজাত করেন।

সোমবার রাজধানীর একটি মিলনায়তনে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী উত্তর আয়োজিত ২৮ অক্টোবরের শহীদদের স্মরণে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় মজলিশে শুরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের নায়েবে আমীর আব্দুর রহমান মুসা, কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের সেক্রেটারি ড. মুহা. রেজাউল করিম, কেন্দ্রীয় মজলিশে শুরা সদস্য মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন, কেন্দ্রীয় মজলিশে শুরা সদস্য নাজিম উদ্দীন মোল্লা, ঢাকা মহানগরী মজলিশে শুরা সদস্য এ্যাডভোকেট আব্দুল কাইয়ুম মজুমদার, ইঞ্জিনিয়ার কামাল উদ্দীন ও ডা. শফিউর রহমান প্রমূখ।

মহানগরী আমীর বলেন, শাহাদাত প্রত্যেক মু’মিনেরই আরাধ্য ও কাঙ্ক্ষিত। হাদিসে রাসুল (সা.) এ বলা হয়েছে, যার মধ্যে শাহাদাতের তামান্না নেই, প্রকৃত পক্ষে তার ঈমানই নেই। আল্লাহ রাব্বুল আলামীন শহীদদেরকে সর্বোচ্চ মর্যদার অধিকারী বলে ঘোষণা দিয়েছেন। পবিত্র কালামে হাকীমে ইরশাদ হয়েছে, ‘আর যারা আল্লাহর রাস্তায় নিহত হয়, তাদের মৃত বলো না বরং তারা জীবিত, কিন্তু তোমরা তা বুঝ না’। (সুরা বাক্বারা : ১৫৩)। অন্য হাদিসে বলা হয়েছে, হজরত আনাস (রা.) বর্ণনা করেন, রাসুল (সা.) বলেছেন, কোনো ব্যক্তি জান্নাতে প্রবেশ করার পর আর দুনিয়ায় ফিরে যেতে চাইবে না।.... অবশ্য শহীদের কথা আলাদা। সে চাইবে যে, তাকে দুনিয়ায় ফিরিয়ে আনা হোক এবং দশবার তাকে আল্লাহর পথে শহীদ করা হোক। এই কারণে যে, সে তার ইজ্জত ও সম্ভ্রম দেখতে পাবে। (বুখারি ও মুসলিম)। তাই ইসলামী আন্দোলনের কর্মীদেরকে শাহাদাতের যজবা নিয়ে দ্বীন কায়েমের প্রত্যয়ে ঐক্যবদ্ধ প্রয়াস চালাতে হবে। তিনি ২৮ অক্টোবরের ঘাতকদের বিচারের আওতায় আনতে সরকারের প্রতি জোর দাবি দাবি জানান। অন্যথায় জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করা সম্ভব হবে না।

তিনি বলেন, দেশ ও জাতি এক মহাক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। দুর্নীতি ও অবক্ষয় রাষ্ট্রযন্ত্রের প্রতিটি রন্ধ্রে রন্ধ্রে প্রবেশ করেছে। সরকার ক্যাসিনো অভিযানে চুনোপুটিদের পাকড়াও করে দুর্নীতির বরপুত্রদের আড়াল করার চেষ্টা করছে বলে জনমনে সন্দেহের সৃষ্টি হয়েছে। তাই এই অভিযানের স্বচ্ছতা ও আন্তরিকতা নিশ্চিত করতে হলে দুর্নীতির রাঘববোয়ালদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। অন্যথায় এই অভিযানকে জনগণ শুধুই আইওয়াশ হিসেবেই বিবেচনা করবে।

তিনি আরো বলেন, মূলত সরকার অবৈধভাবে ক্ষমতায় থাকার জন্যই দেশের গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলো পরিকল্পিতভাবে ধবংস করেছে। সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান নির্বাচন কমিশনকে সাজানো হয়েছে দলদাস ব্যক্তিদের সমন্বয়ে। আর এই প্রহসনের কমিশন দিয়েই ৩০ ডিসেম্বরের ‘মিডনাইট’ নির্বাচনের মাধ্যমে এই সরকার ক্ষমতায় এসে জনগণের ওপর অপশাসন-দুঃশাসন চালাচ্ছে। বিগত নির্বাচন যে সাজানো ও পাতানো ছিল তা প্রধান নির্বাচন কমিশনার, সরকারের শরীকদের কেউ কেউ অবলীলায় স্বীকার করে নিয়েছেন।

একইদিনে জামায়াতে ইসলামীর ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির ২৮শে অক্টোবর ‘পল্টন ট্রাজেডি’ দিবস উপলক্ষে কেন্দ্রীয় সংগঠন ও বিভাগীয় শহর শাখার উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন। ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগর পশ্চিম শাখার দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুহতারাম কেন্দ্রীয় সভাপতি ড.মোবারক হোসাইন।

ভারতের অবদান ছাড়া মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস অসম্পূর্ণ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী শিকাগোর অফিস-আদালতে বাংলা ভাষা! খালেদার স্বাস্থ্য বিষয়ে নিরপেক্ষ প্রতিবেদন নিয়ে ফখরুলের সংশয় ১৭ জেলেকে আটক করেছে মিয়ানমার উল্টোপথের বাসের চাকায় পিষ্ট পথচারী অবশেষে বিয়ের পিঁড়িতে মিথিলা-সৃজিত রুম্পার মৃত্যুর ধোঁয়াশা কাটেনি ১ জন ছাড়া অন্য যেকোনো পদে পরিবর্তন: কাদের আপিল বিভাগে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে সরকার: মন্ত্রী বীরত্বে পদক পাচ্ছেন ডিজিসহ বিজিবির ৬০ সদস্য আইএস এর সেই টুপি খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ নামাজ পড়লে সুস্থ থাকা যায়: মার্কিন গবেষণা মৌলভীবাজারে ৪শ একর জমিতে কমলার চাষ ২০১৯ সালের সেরা অ্যাপ কল অফ ডিউটি আ.লীগে এখন কর্মীর চেয়ে নেতার সংখ্যা বেশি: কাদের প্রকৌশল শিক্ষায়ও সৃজনশীলতার প্রচুর সুযোগ রয়েছে: রাষ্ট্রপতি ‘সুদের হার কমেনি, ১১ মাস কী করলেন অর্থমন্ত্রী’ ৬ রানে অলআউট মালদ্বীপ পিরোজপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ২ জনের মৃত্যু পুঁজিবাজারে সূচকের পতন, লেনদেনও মন্দা রোহিঙ্গাদের কারণে স্থানীয়দের কর্মসংস্থানের সুযোগ কমছে: টিআইবি বিএনপির আইনজীবীদের বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করা উচিত: নাসিম আপিল বিভাগে এমন অবস্থা আগে কখনো দেখিনি: প্রধান বিচারপতি প্রতিবন্ধীদের জন্য উপজেলায় সহায়তা কেন্দ্র চালু হবে: প্রধানমন্ত্রী চিশতির শ্যালক কামাল গ্রেপ্তার এবার হবে ২৩৮ কিলোমিটার পাতাল রেল ৩ দেশ থেকে ভারতে যাওয়া অমুসলিমরা নাগরিকত্ব পাবেন রোহিঙ্গাদের কারণে কক্সবাজারবাসী ‘মানসিক চাপে’: টিআইবি বিএনপি অরাজকতা করলে সমুচিত জবাব দেয়া হবে: কাদের খালেদার জামিনে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ: ফখরুল