artk

স্টাফ রিপোর্টার

বৃহস্পতিবার, অক্টোবার ১৭, ২০১৯ ৪:৪৪

প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ পেতে নন এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের অবস্থান

media

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাক্ষাৎ পেতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে গণ অবস্থান নিয়েছেন নন এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশন। এমপিও নীতিমালা বাতিলের দাবিতে চলা তাদের এ কর্মসূচির আজ তৃতীয় দিন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাক্ষাৎ পেতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে গণ অবস্থান নিয়েছেন নন এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশন। এমপিও নীতিমালা বাতিলের দাবিতে চলা তাদের এ কর্মসূচির আজ তৃতীয় দিন।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় তারা এ কর্মসূচি শুরু করেন। 

গণঅবস্থান কর্মসূচিতে নেতারা জানান, এমপিও নীতিমালা ২০১৮ এ নিম্নমাধ্যমিক শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থী চাওয়া হয়েছে ১৫০জন। কিন্তু পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ও ফলাফল চাওয়া হয়নি। তাহলে নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলো কোন মানদণ্ডে এমপিও করা হবে বিষয়টি স্পষ্ট নয়।

অপরদিকে মাধ্যমিক পর্যায়ে সহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী চাওয়া হয়েছে শহর পর্যায়ে ৩শ জন এবং মফস্বলে ২শ জন। আবার বালিকা বিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থী চাওয়া হয়েছে শহরে ২শ জন মফস্বলে ১শ জন। কিন্তু উভয় প্রতিষ্ঠানের জন্য পরীক্ষার্থী চাওয়া হয়েছে ৪০ জন। 

যদি ২শ জনে ৪০ জন পরীক্ষার্থী হয় সে অনুযায়ী আনুপাতিক হারে ১শ ৫০ জনে ২৬ জন এবং ১শ জনে হতে হবে ১৩ জন। উচ্চ-মাধ্যমিক শহর সহশিক্ষায় ২শ জন শিক্ষার্থীর ক্ষেত্রে পরীক্ষার্থী চাওয়া হয়েছে ৬০ জন আবার নারীশিক্ষায় ১শ ৫০ জনে পরীক্ষার্থী চাওয়া হয়েছে ৬০ জন। 

তারা জানান, ২শ জন শিক্ষার্থীর বিপরীতে ৬০ জন পরীক্ষার্থী চাওয়া হলে ১শ ৫০ জনে ৪৫ জন হবে। মফস্বলে সহশিক্ষা ১শ ৫০ জন শিক্ষার্থীতে পরীক্ষার্থী চাওয়া হয়েছে ৪০ জন। নারী শিক্ষায় ১শ ২০ শিক্ষার্থীর মধ্যে চাওয়া হয়েছে ৪০ জন পরীক্ষার্থী। ১শ ৫০ জন শিক্ষার্থীর ক্ষেত্রে ৪০ জন পরীক্ষার্থী হলে ১শ ২০ জনের ক্ষেত্রে হবে ৩২ জন। 

স্নাতকে সহশিক্ষায় শহরে ২শ ৫০ জন শিক্ষার্থীতে পরীক্ষার্থী ৬০ জন পরীক্ষার্থী। কিন্তু এখানে স্নাতক শিক্ষার্থী চাওয়া হয়েছে ৫০ জন। কিন্তু পরীক্ষার্থী ৬০ জন। যা সম্পূর্ণ অসংগতিপূর্ণ। আবার নারীশিক্ষার জন্য শিক্ষার্থী ১শ ৫০ জনের ডিগ্রি স্তরে শিক্ষার্থী ৩০জনের বিপরীতে ৪০জন পরীক্ষার্থী চাওয়া হয়েছে। এইচএসসি বিএম স্তরে প্রতি ট্রেডে শিক্ষার্থী ৩০ জনের বিপরীতে ৪০জন পরীক্ষার্থী চাওয়া হয়েছে। যা সম্পূর্ণ অযৌক্তিক। অনুরূপভাবে মাদরাসা, কারিগরি ও বিএম কলেজে উল্লেখিত সমস্যাগুলো ২০১৮ এমপিও নীতিমালায় বিদ্যমান।

বক্তারা বলেন, “আমাদের জানামতে আবেদন চাওয়ার সময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাবলিক পরীক্ষার ফলাফলের জাতীয় হার ৭০% এর নিচে ছিল। এমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠানের শুধুমাত্র স্তর এমপিওর নামে শিক্ষক এমপিওর পরিবর্তে প্রতিষ্ঠান এমপিও বলে চালিয়ে দেয়ার অপকৌশল আমরা দেখতে পাচ্ছি।”

বক্তারা আরো বলেন, “এই ভুলে ভরা নানা অসংগতিপূর্ণ নীতিমালা অনুসরণ করে এমপিও তালিকা প্রকাশ হলে, বাংলাদেশের বেসরকারি শিক্ষা ব্যবস্থা অত্যন্ত ক্ষতিগ্রস্থ হবে এবং সরকার ব্যাপক জনসমালোচনার মুখে পড়বে এবং জন অসন্তোষ তৈরী হবে। 

সংগত কারণে এই অসংগতি পূর্ণ ও ভুলেভরা নীতিমালা অনুসরণ করে এমপিও তালিকা প্রকাশ না করার জন্য সবিনয় অনুরোধ জানান তারা। 

তারা বলেন, দীর্ঘ অপেক্ষার পর প্রকাশিত এমপিও প্রাপ্তি থেকে স্বীকৃতি প্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানগুলি বাদ পড়বে। আমরা বিশ্বাস করি একমাত্র মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাতের মাধ্যমেই এই জটিলতা নিরসন সম্ভব।

এমপিও নীতিমালা ২০১৮ প্রকাশের পূর্বে অতীতে যে মানদণ্ড অনুসরণ করে যেসকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হয়েছে, সে মানদণ্ড অনুসরণ করে স্বীকৃতিপ্রাপ্ত শুধুমাত্র নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো একযোগে এমপিওভুক্ত করার জোর দাবি জানান বক্তারা।

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার, সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ বিনয় ভূষণ রায়সহ অন্যান্য সদস্যরা।

পুঁজিবাজারে সব ধরনের সূচক পতন মারা গেছেন হোসনি মোবারক প্রাথমিকে বৃত্তি পেলো ৮২ হাজার ৪২২ শিক্ষার্থী কেন্দ্রীয় ভর্তি পরীক্ষায় জাবিরও না সিটি ব্যাংকের ৩০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন চট্টগ্রামে ৩ ইয়াবা ব্যবসায়ীকে ১৫ বছরের কারাদণ্ড পৌর নির্বাচন: চাঁদপুরে আ.লীগের মেয়র পদপ্রার্থী জুয়েল এনু-রুপনের আরেক বাড়ির পাঁচ সিন্দুকে ২৬ কোটি টাকা ৭ মার্চকে জাতীয় দিবস ঘোষণা করে হাইকোর্টের রায় মুজিববর্ষে এশিয়া ও বিশ্ব একাদশে খেলবে যারা সিএসইর নতুন চেয়ারম্যান আসিফ ইব্রাহিম বউয়ের পছন্দেই মুমিনুলের জার্সি নম্বর বদল জিম্বাবুয়েকে ইনিংস ব্যবধানে হারালো টাইগাররা দুদক ক্ষমতাসীনদের প্রতি নমনীয়তা প্রদর্শন করে: টিআইবি ঢামেক থেকে নবজাতকের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার সিরাজগঞ্জে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ২ এনামুল-রুপনের আরেক বাসায় অভিযানের প্রস্তুতি র‌্যাবের ট্রাম্পের সফরের মধ্যেই রণক্ষেত্র দিল্লি, নিহত ৭ লাঞ্চ বিরতিতে ৫ উইকেটে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ১১৪ বুধবার শিল্পকলা একাডেমিতে প্রাচ্যনাটের ‘খোয়াবনামা’ পিলখানা হত্যাকাণ্ডের ১১ বছর ভারতের কাছে হার দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু সালমাদের আ’লীগ নেতা এনামুল-রুপনের বাড়িতে মিললো ৫ সিন্দুকভর্তি টাকা ভাতঘুমে কমবে রক্তচাপ নিজের ড্রাইভারের নামেই মামলা দিলেন ময়মনসিংহের এসপি পাপিয়াদের দল থেকে ঝেঁটিয়ে বিদায় করা হবে: আব্দুর রহমান নড়াইলে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে হত্যা মদিনায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ বাংলাদেশি নিহত মাইগ্রেনের ব্যথায় চা কফি এড়িয়ে চলতে হবে পবিত্র শবে মেরাজ ২২ মার্চ