artk

স্বাস্থ্য-পুষ্টি ডেস্ক

রোববার, অক্টোবার ১৩, ২০১৯ ৯:৩৩

তেঁতুল পাতায় সেপটিক নাশ

media

কথায় আছে, যদি হও সুজন, তেঁতুল পাতায় ন’জন। আপাত সামান্যের অসামান্য ক্ষমতার এই রূপকার্থের বাস্তব প্রয়োগে নতুন রূপকথা তৈরি করতে চলেছে ভারতের একটি গবেষণা। তেঁতুল পাতাকে আশ্রয় করেই ওষুধ-প্রতিরোধী জীবাণু নাশে মিলেছে সাফল্য। আজকাল প্রায় সবারই জানা, ধীরে ধীরে ওষুধ-প্রতিরোধী হয়ে উঠেছে অনেক ব্যাকটেরিয়া। সংক্রমণ ঠেকানো তাই চিকিৎসকদেরও বড় মাথাব্যথা হয়ে দাঁড়িয়েছে। নিত্যনতুন ওষুধের খোঁজে মরিয়া গবেষণা চলছে সর্বত্র। এমনই সন্ধিক্ষণে আপাত সামান্য তেঁতুল পাতায় মিললো এমন অ্যান্টিবায়োটিকের শক্তি যা দিয়ে ঘায়েল করা যায় বেয়াড়া জীবাণু স্ট্যাফ-অরিয়াসকেও। বেলগাছিয়ার রাজ্য প্রাণি ও মৎস্যবিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় এমনই অভিনব হদিস মিলেছে। দেখা গেছে, তেতুঁল পাতার অ্যালকোহলিক নির্যাস ব্যবহারে মাত্র দুসপ্তাহেই নিকেশ করা যায় সেপটিক আর্থ্রাইটিসের মতো কঠিন ব্যাধির নেপথ্যে থাকা ওই বেয়াড়া জীবাণুটিকে।

গবেষণাপত্রটি সম্প্রতি ছাপা হয়েছে আন্তর্জাতিক জার্নাল প্রকাশনা গোষ্ঠী ‘স্প্রিঞ্জার নেচার’ প্রকাশিত ‘বিএমসি কমপ্লিমেন্টারি অ্যান্ড অল্টারনেটিভ মেডিসিন’ নামের বিখ্যাত বিজ্ঞানপত্রিকায়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মাকোলজি ও টক্সিকোলজি বিভাগের অধ্যাপক তাপসকুমার সরের তত্ত্বাবধানে এই গবেষণায় যুক্ত ছিলেন বিভাগের অধ্যাপক তপনকুমার মণ্ডলের পাশাপাশি বিষ্ণুপ্রসাদ সিনহাসহ ১০ জন জন গবেষক এবং মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের অধ্যাপক সিদ্ধার্থ জোয়ারদার। খরগোশের শরীরকে স্ট্যাফাইলোকক্কাস অরিয়াসে সংক্রমিত করে তাঁরা কৃত্রিমভাবে সেপটিক আর্থ্রাইটিসের জন্ম দেন এবং তার ওপর প্রয়োগ করেন ইথাইল অ্যালকোহলের সঙ্গে তেঁতুল পাতার মিশ্রণের নির্যাস।

গবেষকদলের প্রধান তাপস বলেন, “খরগোশের ওজনের অনুপাতে ৫০০ ও ১০০০ মিলিগ্রাম প্রতি কিলোগ্রাম ওজনের হিসেবে সেই নির্যাস দুসপ্তাহ প্রয়োগ করে দেখা যায়, সমূলে বিনাশ হয়েছে সংক্রমণ। এবং কোনো তাৎপর্যপূর্ণ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও দেখা যায়নি।”

ঠিক এই কারণেই চিকিৎসক মহলের একটা বড় অংশ এই গবেষণার সাফল্যে উচ্ছ্বসিত। কারণ, প্রথাগত চিকিৎসায় থাকে অনেক রকম পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার আশঙ্কা। কারও রক্তে লোহিত রক্তকণিকা তলানিতে চলে যায়। কারও বা শরীরে অস্থিমজ্জার সংশ্লেষ থমকে যায়। অনেকের রক্তে ক্যালসিয়ামের মাত্রা যেমন কমে যায়, অনেকের আবার অন্ত্রের মধ্যে থাকা উপকারী ব্যাকটেরিয়াও মরে যায়। এ সবই যথেষ্ট ঝামেলার। গবেষকদের তাই আশা, এ বার মানুষের উপর প্রয়োগ করে দেখা হবে পুরোটা। সূত্র: এই সময়।

পশুর চেয়েও নিকৃষ্ট ধর্ষক: প্রধানমন্ত্রী করোনা ভাইরাসের কারণে হজে যাওয়া না হলে টাকা ফেরত: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী দাঙ্গা নয়, দিল্লিতে পরিকল্পিত গণহত্যা হয়েছে: মমতা ভারতের সম্মান তলিয়ে দিয়েছে মোদি সরকার: মমতা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সুনামগঞ্জে এনামুল-রুপন ছয় দিনের রিমান্ডে পিরোজপুরে সাবেক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা চলতি বছরই তিস্তা চুক্তির সম্ভাবনা: শ্রিংলা ঢাকা উত্তরের নির্বাচন বাতিল চেয়ে তাবিথের মামলা খুলনায় ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যা অভিনেতা গোলাম মুস্তাফার জন্মদিন সোমবার আদালতে টাউট-বাটপার শনাক্তের নির্দেশ পাওয়ার ট্রলিকে ধাক্কা দিয়ে বিকল রেলইঞ্জিন কলকাতা সফরে এসে প্রবল বিক্ষোভের মুখে অমিত শাহ রোবট চালাবে গাড়ি! ভিপি নূরকে হত্যার হুমকি দেয়ার পর দুঃখ প্রকাশ টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৭ জন নিহত রাখাইনপ্রদেশে সেনাদের গুলিতে শিশুসহ ৫ রোহিঙ্গা নিহত ইস্কাটনে ভবনে আগুন: মায়ের পর চলে গেলেন রুশদির বাবাও চট্টগ্রামে একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২ দেশে প্রতিদিন যক্ষ্মায় মারা যায় ১৩০ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনাভাইরাস আতঙ্কে আয়ারল্যান্ডের স্কুল বন্ধ ঘোষণা বিশিষ্ট সুরকার সেলিম আশরাফ আর নেই মোদীকে অতিথি হিসেবে সর্বোচ্চ সম্মান দেওয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মধুর যত জাদুকরী গুণ চিপসের প্যাকেটের ভিতর খেলনা নয়: হাইকোর্ট আমার গাড়িতেও অস্ত্র আছে কী না আমি জানি না: শামীম ওসমান ফ্র্যান্সেও করোনা, অনিশ্চিত কান চলচ্চিত্র উৎসব উপনির্বাচন: গাইবান্ধা-৩ আসনে প্রতীক বরাদ্দ গুজব ও গণপিটুনি রোধে হাইকোর্টের ৫ নির্দেশনা