artk
সোমবার, ডিসেম্বার ৯, ২০১৯ ৬:১৬   |  ২৫,অগ্রহায়ণ ১৪২৬

স্বাস্থ্য-পুষ্টি ডেস্ক

মঙ্গলবার, অক্টোবার ১, ২০১৯ ১০:০১

হার্ট অ্যাটাকের পূর্বাভাস

media

বিশ্বে সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর কারণ এই মুহূর্তে কার্ডিওভাস্কুলার ডিজিজ বা হৃদরোগ। পশ্চিমের দেশগুলোর মতো এই রোগের প্রকোপ এখন আমাদের দেশেরও সবচেয়ে বেশি মানুষের দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে উঠেছে। বাংলাদেশ, ভারত ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়াতে এই রোগের শিকার বহু মানুষ।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ইদানিং লাইফস্টাইলের ভয়ানক পরিবর্তন, শরীরচর্চা না করা, মসলাদার-ফ্যাটি খাবার, শাক-সবজি-ফল না খাওয়া, মদ ও সিগারেটের নেশা মানুষকে হৃদ রোগের দিকে ঠেলে দিচ্ছে।

ঠিক কোন বিশেষ কারণে মানুষ হৃদরোগের শিকার হয় তা এখনও জানা না গেলেও, বেশ কিছু লক্ষণ রয়েছে যা থেকে সহজেই আন্দাজ করা যায় হৃদরোগের পূর্বাভাস। জেনেটিক্যালিও যে এই রোগ আক্রমণ করতে পারে সে বিষয়ে সকলকেই সাবধান থাকতে হবে। যাঁদের শরীরে কোলেস্টেরলের পরিমাণ বেশি তাদের জেনেটিক্যালি হৃদরোগের সম্ভাবনা বেশি। অনেক কম বয়সেই এমনটা হতে পারে।

কী কী লক্ষণ দেখলে সতর্ক হতে পারেন আপনি?

প্রথম হলো বুকে ব্যথা। বুকের ডান দিক, বাঁ-দিক বা মাঝে- যেখানেই ব্যথা হোক না কেন তা কিন্তু চিন্তার। এটাই কিন্তু হার্ট অ্যাটাকের প্রথম লক্ষণ। মূল লক্ষণ। একে কোনোভাবেই এড়িয়ে চলা যাবে না।

এর সঙ্গে বমি বমি ভাব, ঘাম হওয়া, জ্ঞান হারানো এবং বুকে ও পেটে শ্বাসের অভাব অনুভূত হলে সতর্ক হতে হবে।

পেটে যদি ৩০ মিনিটের বেশি কোনো অস্বাভাবিক অনুভূতি হয়, সেক্ষেত্রে সতর্ক হতে হবে। সময় পার হলেই চিকিৎসকের কাছে যান।

অনেক সময়ই হার্টের রোগীরা তাদের সমস্যা নিয়ে গ্যাসট্রোএন্ট্রোলজিস্টের কাছে সমাধানের জন্য যান। কারণ তারা বুঝতে পারেন না যে, সেটি আসলে কার্ডিও সমস্যা। সেক্ষেত্রে কিন্তু সতর্ক হতে হবে। সঙ্গে কার্ডিওলজিস্টও একবার দেখানো উচিত।

হার্ট অ্যাটাকের আগে অনেক সময়ই প্রচণ্ড ব্যাক পেন বা ঘাড়ে ব্যথা শুরু হয়। সেক্ষেত্রে ৩০ মিনিটের বেশি সময় চলে গেলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

অনেক সময় থুতনিতেও ব্যথা শুরু হয়। সেটিও গুরুত্ব দিয়ে চিকিৎসার প্রয়োজন।

জেনে নিন হার্ট সুস্থ রাখার বেশ কয়েকটি টিপস-

১. শরীরচর্চা

হার্টকে সুস্থ রাখতে নিত্যদিন শরীরচর্চা খুব জরুরি। অন্তত ৩০ মিনিট হাঁটা বা ফ্রি হ্যান্ড এক্সারসাইজ করতেই হবে।

২. স্বাস্থ্যকর ডায়েট

তাজা শাকসবজি, ফল- এসব ডায়েটে রাখতেই হবে। ট্রান্স ফ্যাটি অ্যাসিডযুক্ত খাবার ও মসলাদার খাবার এড়িয়ে চলুন। অতিরিক্ত ভাজাভুজি, জাঙ্ক ফুড খাওয়া বন্ধ করুন।

৩. পারিবারিক ইতিহাস

যদি পরিবারে কারও হার্টের রোগের ইতিহাস থাকে, সেক্ষেত্রে অনেক কম বয়স থেকেই এই রোগ নিয়ে সচেতন থাকতে হবে। নিয়মিত ডায়াবেটিস, কোলেস্টেলর ও ট্রাইগ্লিসারাইড মাপিয়ে নিতে হবে।

৪. তামাক

সিগারেট বা যে কোনও ধরনের তামাকজাত দ্রব্য শরীরকে একেবারে শেষ করে দেয়। এগুলো জীবন থেকে একেবারে বাদ দিতে হবে।

৩৯তম বিসিএস থেকে আরও ১৬৮ চিকিৎসক নিয়োগ থানায় আসা জনগণের সঙ্গে ভালো আচরণ করার নির্দেশ আইজিপির ডিএসইর পরিচালক নির্বাচনের মনোনয়ন সংগ্রহ সোমবার সচিবালয় এলাকায় হর্ন বাজালে জেল পর্দা উঠলো বঙ্গবন্ধু বিপিএলের ভুয়া দুদক চক্র আটক হাইকোর্টে হট্টগোলকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নোটিশ মিথিলা ফাহমির অন্তরঙ্গ ছবি সরানোর নির্দেশ পাটকল শ্রমিকদের আমরণ অনশনের হুমকি জেলার সিনেমা হলগুলোর প্রতি দৃষ্টি দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী জমকালো আয়োজনে বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধনী শুরু ইটিআইএনধারীদের রিটার্ন দা‌খি‌লে বাধ্য করা হবে: এনবিআর চেয়ারম্যান ফাইনালের আগে শ্রীলঙ্কার সাথে হার বাংলাদেশের জার্মানিতে সায়েন্টিস্ট অ্যাওয়ার্ড পেলেন ২ বাংলাদেশি বেগম রোকেয়া পদক পাচ্ছেন ৫ বিশিষ্ট নারী টাইগারদের সাথে দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলতে চায় পাকিস্তান অভিযোগ প্রমাণ করে গণমাধ্যমে উপস্থাপন করুন, পদত্যাগ করবো: নুর খালেদার জামিন নিয়ে সরকার ‘জঘন্য নাটক’ করছে: ফখরুল দুর্নীতি করলে কাউকে ছাড় নয়: দুদক চেয়ারম্যান বিএনপির অপর নাম এখন নালিশ দল: কাদের যাত্রীর জ্যাকেটে কোটি টাকার সোনা পুঁজিবাজারে সব ধরনের সূচকে পতন রুম্পার প্রেমিক সৈকত চার দিনের রিমান্ডে ট্রিপল মার্ডারের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে আটক দুই শ্বাসরুদ্ধ ফাইনালে বাংলাদেশের মেয়েদের সোনা জয় রুম্পার বন্ধু সৈকতকে রিমান্ডে চায় পুলিশ রুম্পা হত্যার বিচার দাবিতে উত্তাল স্টামফোর্ড চাকরিতে প্রবেশের বয়স সীমা ৩৫ করার দাবিতে গণঅনশন দিল্লিতে ভয়াবহ আগুনে নিহত ৪৩ সন্ধ্যায় ঝগড়া, রাতে স্ত্রীকে হত্যা করে স্বামীর আত্মহত্যা