artk

কক্সবাজার সংবাদদাতা

রোববার, সেপ্টেম্বার ২৯, ২০১৯ ৪:৪৯

বৌদ্ধপল্লীতে হামলা: ৭ বছরেও বিচার না পাওয়ায় হতাশ ক্ষতিগ্রস্তরা

media

আজ থেকে সাত বছর আগে কক্সবাজারের রামু উপজেলায় ধর্ম অবমাননার গুজব ছড়িয়ে বৌদ্ধপল্লীতে হামলার ঘটনা ঘটে। ১৩টি বৌদ্ধ মন্দিরে ভাংচুর, লুটপাট চালায় তারা, ৩০টি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করা হয়। এর সাত বছর পেরিয়ে গেলেও বিচার শেষ না হওয়ায় হাতাশা প্রকাশ করেছেন ক্ষতিগ্রস্তরা।

আজ থেকে সাত বছর আগে কক্সবাজারের রামু উপজেলায় ধর্ম অবমাননার গুজব ছড়িয়ে বৌদ্ধপল্লীতে হামলার ঘটনা ঘটে। ১৩টি বৌদ্ধ মন্দিরে ভাংচুর, লুটপাট চালায় তারা, ৩০টি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করা হয়। এর সাত বছর পেরিয়ে গেলেও বিচার শেষ না হওয়ায় হাতাশা প্রকাশ করেছেন ক্ষতিগ্রস্তরা।

রামু উপজেলার হাইটুপি গ্রামের বাসিন্দা উত্তম বড়ুয়া ফেইসবুকে ‘কোরআন অবমাননাকর’ ছবি পোস্ট করেছেন- এমন অভিযোগ তুলে ২০১২ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর রাতে ওই গ্রামে সংঘবদ্ধ হয়ে হামলা চালায় একদল লোক। 

ওই ঘটনায় নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ, জেলা জামায়াতের সেক্রেটারি জিএম রহিমুল্লা, সদর উপজেলার ভাইস-চেয়ারম্যান শহিদুল আলম বাহাদুরসহ দেড় হাজারের বেশি লোককে আসামি করে মামলা হয়।

বৌদ্ধ মন্দির ও পল্লীতে হামলার ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে ১৮টি মামল করে। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত একজন আরও একটি মামলা করলেও পরে তা প্রত্যাহার করে নেন।

রামু মেরংলোয়া এলাকার বাসিন্দা দীপংকর বড়ুয়া বলেন, “সাত বছর পেরিয়ে গেলেও মামলার নিষ্পত্তি এখনো হয়নি। বিচারে বিলম্ব হলে প্রকৃত দোষীরা শাস্তির আওতা থেকে পার পেয়ে যেতে পারে।”

দ্রুত মামলার নিষ্পত্তি করে প্রকৃত দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, “ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির ও বসত বাড়িগুলো পুননির্মিত হলেও মনের ক্ষত তো এখনো মোছেনি।”

সাত বছর আগের ওই হামলায় বৌদ্ধ মন্দিরের অসংখ্য পুরাকীর্তি, কয়েকশ ছোট-বড় বুদ্ধমূর্তি, কয়েকটি ভাষার ত্রিপিটিক এবং ‘গৌতম বুদ্ধের অমূল্য ধাতু’ (দেহভস্ম) আগুনে পুড়ে যায় । পরে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় এসব বৌদ্ধ বিহার ও বসত বাড়ি পুনরায় নির্মাণ করা হয়। ২০১৩ সালের ৩ সেপ্টেম্বর পুননির্মিত এসব বৌদ্ধ মন্দির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মামলার অগ্রগতি জানতে চাইলে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ফরিদুল আলম বলেন, পুলিশের করা ১৮টি মামলার অভিযোগপত্রে মোট ৯৩৬ জনকে আসামি করা হয়েছে। তারা সবাই এখন জামিনে আছে।

দীর্ঘ পাঁচ বছর তদন্তের পর মামলাগুলো বিচারের পর্যায়ে এলেও অগ্রগতি খুব বেশি নেই।  এ পর্যন্ত কয়েকজনের সাক্ষ্য নেয়া হয়েছে কেবল।

এ বিষয়ে  পিপি ফরিদুল আলম বলেন, “আসামি বেশি থাকায় তদন্ত কাজে সময় বেশি লেগেছে। পুলিশ যদি মামলার সাক্ষীদের আদালতে উপস্থাপন করতে পারে, সাক্ষীরা যদি যথাযথ সাক্ষ্য দেয়, তাহলে প্রকৃত দোষীদের শাস্তি দিয়ে বিচারকার্য সম্পন্ন করা যাবে।”

পুলিশ সুপার এ বি এম মাসুদ হোসেন বলেন, রামুসহ কক্সবাজারের বৌদ্ধ পল্লীগুলো পুলিশের সার্বক্ষণিক নজরদারিতে রয়েছে। ২০১৭ সালে এ দেশে রোহিঙ্গা আসার পর বৌদ্ধ সম্প্রদায় কিছুটা আতঙ্কে ছিল। আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর পদক্ষেপে তা এখন স্বভাবিক হয়েছে।

একই মনোভাব প্রকাশ করেন রামু কেন্দ্রীয় সীমা বিহারের আবাসিক ভিক্ষু প্রজ্ঞানন্দ থের। রামু সহিংসতার মত দ্বিতীয় কোনো ঘটনা যাতে বাংলাদেশে না ঘটে সেজন্য দৃষ্টান্ত রচিত হওয়া উচিত বলে তিনি মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, “শুধুমাত্র ক্ষতিগ্রস্ত সম্প্রদায় নয়, জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকলের প্রত্যাশা ছিল প্রকৃত দোষীদের শাস্তি দিয়ে একটি দৃষ্টান্ত স্থাপন হবে। যেসব মামলা হয়েছে, তাতে কোনো নিরাপরাধ ব্যক্তি যাতে হয়রানির শিকার না হন, প্রকৃত দোষীরা যাতে শাস্তির আওতায় আসে, তা নিশ্চিত করতে হবে।

 

পশুর চেয়েও নিকৃষ্ট ধর্ষক: প্রধানমন্ত্রী করোনা ভাইরাসের কারণে হজে যাওয়া না হলে টাকা ফেরত: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী দাঙ্গা নয়, দিল্লিতে পরিকল্পিত গণহত্যা হয়েছে: মমতা ভারতের সম্মান তলিয়ে দিয়েছে মোদি সরকার: মমতা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সুনামগঞ্জে এনামুল-রুপন ছয় দিনের রিমান্ডে পিরোজপুরে সাবেক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা চলতি বছরই তিস্তা চুক্তির সম্ভাবনা: শ্রিংলা ঢাকা উত্তরের নির্বাচন বাতিল চেয়ে তাবিথের মামলা খুলনায় ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যা অভিনেতা গোলাম মুস্তাফার জন্মদিন সোমবার আদালতে টাউট-বাটপার শনাক্তের নির্দেশ পাওয়ার ট্রলিকে ধাক্কা দিয়ে বিকল রেলইঞ্জিন কলকাতা সফরে এসে প্রবল বিক্ষোভের মুখে অমিত শাহ রোবট চালাবে গাড়ি! ভিপি নূরকে হত্যার হুমকি দেয়ার পর দুঃখ প্রকাশ টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৭ জন নিহত রাখাইনপ্রদেশে সেনাদের গুলিতে শিশুসহ ৫ রোহিঙ্গা নিহত ইস্কাটনে ভবনে আগুন: মায়ের পর চলে গেলেন রুশদির বাবাও চট্টগ্রামে একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২ দেশে প্রতিদিন যক্ষ্মায় মারা যায় ১৩০ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনাভাইরাস আতঙ্কে আয়ারল্যান্ডের স্কুল বন্ধ ঘোষণা বিশিষ্ট সুরকার সেলিম আশরাফ আর নেই মোদীকে অতিথি হিসেবে সর্বোচ্চ সম্মান দেওয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মধুর যত জাদুকরী গুণ চিপসের প্যাকেটের ভিতর খেলনা নয়: হাইকোর্ট আমার গাড়িতেও অস্ত্র আছে কী না আমি জানি না: শামীম ওসমান ফ্র্যান্সেও করোনা, অনিশ্চিত কান চলচ্চিত্র উৎসব উপনির্বাচন: গাইবান্ধা-৩ আসনে প্রতীক বরাদ্দ গুজব ও গণপিটুনি রোধে হাইকোর্টের ৫ নির্দেশনা