artk
শনিবার, অক্টোবার ১৯, ২০১৯ ৬:৫৭   |  ৪,কার্তিক ১৪২৬

স্টাফ রিপোর্টার

মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বার ১৭, ২০১৯ ১০:০১

গণহত্যার ঝুঁকিতে এখনো ৬ লাখ রোহিঙ্গা: জাতিসংঘ

media

ফাইল ফটো

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে এখনো ছয় লাখের মতো রোহিঙ্গা মুসলিম গণহত্যার চরম ঝুঁকিতে বলে আশঙ্কা করছে জাতিসংঘ। সংস্থাটির তদন্তকারী একটি মিশন গতকাল সোমবার এক প্রতিবেদনে তাদের এ আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে এখনো ছয় লাখের মতো রোহিঙ্গা মুসলিম গণহত্যার চরম ঝুঁকিতে বলে আশঙ্কা করছে জাতিসংঘ। সংস্থাটির তদন্তকারী একটি মিশন গতকাল সোমবার এক প্রতিবেদনে তাদের এ আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন।

জাতিসংঘের তদন্তকারী দল বলছে, বর্তমানে মিয়ানমারের যে পরিস্থিতি, তাতে বিতাড়িত হওয়া ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গার প্রত্যাবাসনের বিষয়টি অসম্ভবই হয়ে আছে। জাতিসংঘের ওই ফ্যাক্ট-ফাইন্ডিং মিশন যে চূড়ান্ত প্রতিবেদনে তৈরি করেছে তা মঙ্গলবার জেনেভায় উপস্থাপন করার কথা রয়েছে।

রোহিঙ্গা নিধন অভিযান নিয়ে জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিল গত বছর একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। তাতে ২০১৭ সালে রাখাইনে পরিচালিত দেশটির সেনাবাহিনীর নিধন অভিযানকে গণহত্যা বলে উল্লেখ করে সেনাপ্রধানসহ দেশটির সামরিক কর্মকর্তাদের বিচারের আহ্বান জানায়।

জাতিসংঘের ওই তিন সদস্যের ফ্যাক্ট-ফাইন্ডিং মিশনের চেয়ারম্যান মারজুকি দারুশম্যান গত বছরের প্রতিবেদনের কথা উল্লেখ করেন। যেখানে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধ এবং যুদ্ধাপরাধের প্রমাণ পাওয়ার কথা জানানো হয়।

মিশনের চেয়ারম্যান মারজুকি দারুশম্যান বলেন, রাখাইনে দেশটির সেনাবাহিনীর একই রকম অপরাধী কর্মকাণ্ড অব্যাহত রয়েছে। ২০১৭ সালের আগস্টে রাখাইনে রোহিঙ্গাদের নিধন অভিযান শুরু করে সেনাবাহিনী। তারপর প্রাণ বাঁচাতে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে ৭ লাখ ৪০ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা।

মারজুকি দারুশম্যান বলেন, ‘আমরা মিয়ানমার সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর গণহত্যা ও গণহত্যা চালানোর মতো সব অভিপ্রায়ের প্রমাণ পেয়েছি। যুগ যুগ ধরে তারা (মিয়ানমারের নিরাপত্তাবাহিনী) পাশবিক এই অপরাধ করে এলেও তাদের কোনো বিচার হচ্ছে না।’

মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও তাদের সহযোগী হিসেবে স্থানীয় উগ্রপন্থী রাখাইন বৌদ্ধরা রোহিঙ্গাদের ওপর ব্যাপক হত্যাকাণ্ড, ধর্ষণ, নির্যাতন, তাদের বাড়িঘর পুড়িয়ে দেয়। বাংলাদেশে এখন মোট রোহিঙ্গা শরণার্থীর সংখ্যা ১১ লাখ ৫০ হাজারেরও বেশি।

বাংলাদেশকে শতভাগ সহযোগিতা করার কথা বললেন সৌরভ আফগানিস্তানে মসজিদে বোমা হামলায় নিহত ৬২ আবারও ব্যর্থ সৌম্য, সেঞ্চুরি বঞ্চিত ইমরুল চোট নিয়েই সাইফের ডাবল সেঞ্চুরি যুবলীগের দায়িত্ব পেলে উপাচার্যের পদ ছেড়ে দেব: ড. মীজান ৩ শতাধিক ভারতীয়কে দিল্লিতে ফেরৎ পাঠাল মেক্সিকো শিশু হত্যা-নির্যাতন বরদাশত করা হবে না: প্রধানমন্ত্রী জাতীয় লিগে বল হাতে ভয়ঙ্কর আবু হায়দার রনি ফের বাংলাদেশ দলকে ব্যঙ্গ করলেন শেবাগ জামায়াতকে তালাক দিয়ে বিএনপিকে রাস্তায় নামার আহ্বান জাফরুল্লাহর বাংলাদেশে পাবজি গেম নিষিদ্ধ তাজরিন ফ্যাশনে ক্ষতিগ্রস্থ শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণের দাবিতে মানববন্ধন ‘আমি মায়ের কাছে যাবো’ সিলেট বিএনপির কমিটিতে কেন্দ্রের হস্তক্ষেপ না করার ওয়াদা তারেক রহমানের ঐক্যের ডাক গ্রামে নিয়ে যেতে হবে: ড. কামাল সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ বাংলাদেশি নিহত ভুল বোঝাবুঝির কারণে সীমান্তে গোলাগুলি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নওয়াপাড়ায় বাসের ধাক্কায় দুই পথচারীর মৃত্যু আবরার দেশপ্রেমিক জনগণের আন্দোলনের মূর্তপ্রতীক: রিজভী ১ মিটার প্রস্থের বাড়ি শাহ আমানতে ১৩০ সোনার বারসহ যাত্রী আটক সাভারে গাড়ির ধাক্কায় যুবক নিহত জবির বিজ্ঞান বিভাগের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ গণভবনে কেন ডাকা হয়নি ওমর ফারুককে পঞ্চগড়ে রাস্তার ধারে ফুটফুটে শিশু ছাত্র রাজনীতি সূর্যের আলো ঠিকরে পড়ে প্রবালে জয়পুরহাটে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১ টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই রোহিঙ্গা নিহত কম বয়সে মেনোপজে বাড়ে হৃদরোগের সম্ভাবনা